আর কোনো লুকিয়ে না রেখে এবার নিজের গো’পন দু’র্বলতা নিয়ে প্রকাশ্যে মুখ খুললেন রচনা ব্যানার্জি!

নিজস্ব প্রতিবেদন :- দেখুন প্রতিটি মানুষের জীবনে কিছু না কিছু দু-র্বলতা থে-কেই থা-কে । কেউ কেউ সেটাকে প্রকাশ করে আবার কেউ প্রকাশ করেনা ।কেউ রেখে দেয় চিরজীবন গোপনে। আবার কারুর হঠাৎ করে দু-র্ভা-গ্যব-শত কেউ জেনে যায় । এবং এই দু-র্বলতা যদি কারো কাছে আপনি প্রকাশ করে দেন তাহলে কিন্তু আপনাকে বারবার সেই দুর্বল জায়গাতে আঘাত করতে থাকবে আপনার আশেপাশের শত্রুরা ।কিন্তু কিছু কিছু দু-র্বলতা এমন হয় যেখানে আ-ঘাতের কোনো সুযোগ থাকে না । শুধু শুনে যেতে হয় । সেরকম একটি দু-র্বলতা রয়েছে রচনা ব্যানার্জির ।

একদমই ঠিক শুনেছেন রচনা ব্যানার্জির যিনি বাংলা অভিনয় জগতে মাইলস্টোন বলতে পারেন । এবার কোনরকম লা-জ-ল-জ্জা ছাড়া রচনা ব্যানার্জি প্রকাশ করলে নিজের দুর্বলতা । ১৯৭৪ সালের ২ অক্টোবর, কলকাতা, পশ্চিম বঙ্গ, ভারত এ জন্ম গ্রহণ করেন তিনি । রচনা ব্যানার্জি  প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়ের সাথে ৩৫টি সিনেমাতে অভিনয় করেন। তিনি বেশকিছু ওড়িশ্যা ছবিতে অভিনয় করেন সিদ্ধার্থ মহাপত্র-এর সঙ্গে। এছাড়া তিনি অমিতাভ বচ্চনের সাথে হিন্দি ছবিতে অভিনয় করেন। এছাড়া, তিনি উপেন্দ্র ও চিরঞ্জিবের সাথে দক্ষিণ ভারতের ছবিতে অভিনয় করেন। ৯০এর দশকে ভারতীয় বাংলা চলচ্চিত্রে আসা নায়িকাদের মধ্য তিনি প্রথমসারির নায়িকা হিসাবে খ্যাতি পান।

রচনা ব্যানার্জী ১৯৯০ সালে মিস ক্যালকাটা পুরস্কার জেতেন। তিনি অভিনয় শুরু করার আগে অনেক সুন্দরী প্রতিযোগিতা জেতেন। তিনি পিতা-মাতার একমাত্র সন্তান। তার আসল নাম ঝুমঝুম ব্যানার্জী। পরিচালক সুখেন দাস তার প্রথম চলচ্চিত্র দান প্রতিদানে (১৯৯৩) তার নাম রাখেন রচনা। রচনা কটকে সিদ্ধার্থ মহাপত্র-কে বিয়ে করেন। পরে তাদের ছাড়াছাড়ি হয় এবং ওড়িশ্যা চলচ্চিত্র ছেড়ে দেন। পরে তিনি প্রবাল বসুকে বিয়ে করেন এবং তাদের একটি ছেলে প্রনিল বসু।তিনি পরে আর বিয়ে করেন না।

তবে এসবের পাশাপাশি সোশ্যাল মিডিয়াতে যথেষ্ট পরিমাণে সক্রিয় বাংলার এই অভিনেত্রী। মাঝেমধ্যেই তার অনুগামীদের জন্য তুলে ধরেন বেশ কয়েকটি ভিডিও এবং ছবি। কাজের ফাঁকে যদি সময় পাই তাহলে পাড়ি দেয় অন্য কোন জায়গায় । এবং সেখান থেকে তিনি তুলে ধরেন প্রতিটি মুহূর্ত তার অনুগামীদের উদ্দেশ্যে । সম্প্রতি তিনি সোশ্যাল মিডিয়াতে জানিয়েছেন তার দুর্বলতার কথা । তিনি জানিয়েছেন নিজেকে ঠিক রাখতে তিনি প্রতিদিন লাউয়ের জুস খান । কিন্তু তার দু-র্বলতা হলো মিষ্টি । ব্যা-পক পরিমাণে তিনি মিষ্টি খেতে ভালোবাসেন । কিন্তু শরীরের প্রতি খেয়াল রেখে পর্যাপ্ত পরিমাণে বা মনের ইচ্ছে মত মিষ্টি খেতে পারেন না । এবং মিষ্টি তার একমাত্র দু-র্বলতা ।

Back to top button